1. news@patiyaralo.com : patiyar alo : patiyar alo
  2. admin@www.patiyaralo.com : news :
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবেলায় ঋণ নয় ধনী দেশগুলোকে অনুদান নিশ্চিত করতে হবে- সনাক-টিআইবি, পটিয়া

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২১
  • ৩৫ বার পড়া হয়েছে

পটিয়ার আলো. কম : ৩১ অক্টোবর ২০২১: কয়লাভিত্তিক জ্বালানি ব্যবহার বন্ধ করে নবায়নযোগ্য জ্বালানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ২০২১ সালের পর কয়লা নির্ভর নতুন কোনো বিদ্যুৎ প্রকল্প অনুমোদন ও অর্থায়ন না করার ঘোষণা প্রদানের দাবি জানিয়েছে সনাক পটিয়া টিআইবি। পাশাপাশি গ্লোবাল ক্লাইমেট ফান্ড (জিসিএফ)-সহ জলবায়ু তহবিলে ঋণ কিংবা বীমা নয়, অভিযোজনকে অগ্রাধিকার দিয়ে অধিক কার্বন নিঃসরণকারী উন্নত রাষ্ট্রসমূহকে অনুদান হিসাবে ক্ষতিপুরণের টাকা প্রদানের জোর দাবি জানায়।

আজ (৩১ অক্টোবর ২০২১) সকাল এগার টায় পটিয়া পোস্ট অফিস মোড় সড়কে আসন্ন জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন-কপ ২৬ উপলক্ষে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এসব কথা বলেন সনাক-টিআইবি, পটিয়ার এর নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকবৃন্দ।

সনাক-টিআইবি, পটিয়া সহ-সভাপতি মো. সোলায়মান সভাপতিত্বে ও এরিয়া কোঅর্ডিনেটর আবু নাছের এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত মানববন্ধনে টিআইবি’র অবস্থানপত্র পাঠ করেন সনাক পটিয়ার ইয়েস সদস্য অতনু চক্রবর্ত্রী। আসন্ন কপ-২৬ সন্মেলনে কয়লাভিক্তিক জ্বালানি নিষিদ্ধ, জলবায়ু অর্থায়নে দৃশ্যমান অগ্রগতি, ন্যায্যতা ও স্বচ্ছতা নিশ্চিতসহ প্যারিস চুক্তির বাস্তবায়ন নিশ্চিতের সনাক পটিয়া টিআইবি’র ১২ দফা দাবি তুলে ধরেন স্বজনের সদস্য সুকোমল দে।

এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সনাক সদস্য ও সাবেক সভাপতি এস.এম.এ.কে. জাহাঙ্গীর, সনাক সদস্য নিত্যময় চৌধুরী, স্বজন সদস্য নুরুল ইসলাম, পটিয়া নিউজ ডট কমের সম্পাদক এ.টি.এম তোহা এবং ইয়েস সদস্য ও সাবেক দলনেতা আকাশ দত্ত। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সনাক সদস্য আব্দুর রাজ্জাক, নাসিমা আক্তার, ইপসা এনজিও ব্রাঞ্চ ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সদস্য, শিক্ষার্থী এবং সনাকের সনাক, স্বজন, ইয়েস ও ইয়েস ফেন্ডস সদস্যবৃন্দ।

মানববন্ধনে সনাক সদস্য ও সাবেক সভাপতি এস.এম.এ.কে. জাহাঙ্গীর বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ঝুঁকিতে আছে বাংলাদেশ, সেইসাথে সবচেয়ে বেশি ঝুকিঁতে রয়েছে উপকূলীয় অঞ্চলগুলো । রামপাল, মাতারবাড়ি, বাঁশখালী প্রকল্পসহ মোট ১৯টি কয়লা ও এলএনজিভিত্তিক প্রকল্প বাস্তবায়নের বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে দেশে, যার বড় অংশই আবার উপকূলীয় জেলায়।

প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ৬৩ গুণ বৃদ্ধি পাবে এবং২০৩০ সালের মধ্যে বছরে ১১৫ মিলিয়ন টন বাড়তি কার্বন ডাই অক্সাইড নিঃসরণ করবে।
মানববন্ধনে পটিয়া নিউজ ডট কমের সম্পাদক এ.টি.এম তোহা বলেন, কয়লা ভিত্তিক জ্বালানি ব্যবহার বন্ধ এবং নবায়ণ যোগ্য জ্বালানী প্রসার করতে না পারলে বাংলাদেশ এশিয়ার অন্যতম কয়লা দূষণকারী দেশে রূপান্তরিত হবে, যা কার্বন নিঃসরণ কমানো সংক্রান্ত সরকারের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গীকারের সাথে সাংঘর্ষিক। এমন বাস্তবতায় ২০২১ সালের পর কয়লা জ¦ালানি নির্ভর নতুন কোনো প্রকল্প অনুমোদন ও অর্থায়ন না করার ঘোষণা প্রদানের পাশাপাশি নবায়নযোগ্য জ্বালানি  লক্ষমাত্রা অর্জনে কার্যকর নীতি ও বিনিয়োগের দাবি জানায়।

মানববন্ধনে স্বজন সদস্য নুরুল ইসলাম বলেন “ বাংলাদেশ যেহেতু জলবায়ু পরিবর্তনে ঝুঁকিপূর্ণ ও ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম, তাই ২০২১ সালের পরে নতুন কোনো প্রকার কয়লা জ্বালানি নির্ভর প্রকল্প অনুমোদন ও অর্থায়ন না করার সরকারের প্রতি আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, জীবন-জীবিকা, বন ও পরিবেশ ও প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ শিল্পায়ন কার্যক্রম স্থগিত করে আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য ও নিরপেক্ষ কৌশলগত পরিবেশের প্রভাব নিরূপণ সাপেক্ষে অগ্রসর হতে হবে“

সনাক সহ-সভাপতি মো. সোলায়মান বলেন “ যেহেতু বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ঝুঁকিতে থাকা এবং ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে এমনিতেই বাংলাদেশের উপকূলীয় স্থলভাগের ১১ শতাংশ তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। চার ও পাঁচ মাত্রার ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার ঝুঁকিও বাড়বে ।

এর মধ্যে উপকূলীয় জেলায় এত বিশাল সংখ্যক কয়লা প্রকল্প বন ও পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করবে এবং জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি আরও বাড়িয়ে দিবে। ফলে উপকূলীয় জেলায় বসবাসরত ১ কোটি ৫০ লক্ষ মানুষের জীবন ও জীবিকা আরও হুমকির মুখে পড়বে। চীন দেশের বাইরে কয়লা প্রকল্পে অর্থায়ন না করার ঘোষণা দিলেও বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে নির্মাণাধীন প্রকল্পে অর্থায়ন বন্ধের কোনো ঘোষণা দেয়নি ।

শিল্পোন্নত দেশগুলো কর্তৃক প্রতিশ্রুত বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণের অর্থ স্বচ্ছভাবে ছাড় করানোর এবং “গ্রীন ক্লাইমেট ফান্ড (জিসিএফ) থেকে অর্থছাড় ও প্রকল্প প্রদানে তাদের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত