1. news@patiyaralo.com : patiyar alo : patiyar alo
  2. admin@www.patiyaralo.com : news :
শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শামসুল হুদা ও বদিউল আলম মজুমদারের সমালোচনায় সিইসি সংসদে নির্বাচন কমিশন বিল পাস বোয়ালখালী থানার পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলার আটককৃত আসামী ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ বোয়ালখালী প্রেসক্লাবকতৃক সংবর্ধিত হলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাসহ ৩ মানবতার স্বাস্থ্য সেবক বিশ্ববাজারে যাচ্ছে বাংলাদেশের তৈরি মোবাইল হ্যান্ডসেট সিনিয়র ছাত্রকে থাপ্পড়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী বহিষ্কার স্বর্ণ এবং এলুমিনিয়ামের তৈরি বিশ্বের সর্ববৃহৎ কুরআনের প্রদর্শনী দুবাইতে আন্দোলন চালিয়ে যেতে শাবি শিক্ষার্থীদের শপথ মালয়েশিয়ায় পুলিশকে ঘুষ সাধায় বাংলাদেশিকে ২ লাখ টাকা জরিমানা টোঙ্গার আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণ ছিল পরমাণু বোমা থেকে কয়েকশ’ গুন শক্তিশালী

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীকে ফাঁসাতে নৌকার ক্যাম্পে হামলার অভিযোগ করলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী কাইস

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে

পটিয়া উপজেলার কাশিয়াইশ ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কাসেম ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ কাইছের কর্মী-সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী কাইস অভিযোগ করে বলেন, তাকে ফাঁসাতে নৌকার প্রার্থী আবুল কাশেম নিজেই ভাংচুর করে তার উপর দোষারোপ করছেন।

সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের নয়াহাট বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষ চলাকালে উভয় পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

সংঘর্ষ চলাকালে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কাসেমের একটি প্রাইভেটকার ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর করা হয় এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ কাইছের কর্মীদের একটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ ও আরেকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর চালানো হয়।

হামলার ঘটনায় আহতরা হলেন দুলাল মজুমদার (৩০), উজ্জ্বল সেন (২৩), সাব্বির হোসেন লুমন (২৬), তপন দাশ (৩৫) ও মোহাম্মদ রাসেল (২৮)। অন্যদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। আহতদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ সময় কয়েকজন পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ব্যাপক ইটপাটকেল ছুঁড়ার কারণে তাদের নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করতে হয়।

পরে পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার, ওসি (তদন্ত) রাশেদুল ইসলামসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুইপক্ষকে লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কাসেম জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ কাইছের নেতৃত্বে আমার নির্বাচনী অফিসে হামলা, গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কাইছ জানান, নৌকার প্রার্থী প্রভাব খাটিয়ে আমাদের কর্মী রাসেলকে মারধর করে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়।

এ সময় একটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ ও আরেকটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়। হামলার সময় আমি খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে আমার উপরও ইটপাটকেল ছুঁড়ে।

পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দুপক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করি। বর্তমানে এলাকায় পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত