1. news@patiyaralo.com : patiyar alo : patiyar alo
  2. admin@www.patiyaralo.com : news :
শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৪০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শামসুল হুদা ও বদিউল আলম মজুমদারের সমালোচনায় সিইসি সংসদে নির্বাচন কমিশন বিল পাস বোয়ালখালী থানার পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলার আটককৃত আসামী ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ বোয়ালখালী প্রেসক্লাবকতৃক সংবর্ধিত হলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাসহ ৩ মানবতার স্বাস্থ্য সেবক বিশ্ববাজারে যাচ্ছে বাংলাদেশের তৈরি মোবাইল হ্যান্ডসেট সিনিয়র ছাত্রকে থাপ্পড়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী বহিষ্কার স্বর্ণ এবং এলুমিনিয়ামের তৈরি বিশ্বের সর্ববৃহৎ কুরআনের প্রদর্শনী দুবাইতে আন্দোলন চালিয়ে যেতে শাবি শিক্ষার্থীদের শপথ মালয়েশিয়ায় পুলিশকে ঘুষ সাধায় বাংলাদেশিকে ২ লাখ টাকা জরিমানা টোঙ্গার আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণ ছিল পরমাণু বোমা থেকে কয়েকশ’ গুন শক্তিশালী

পাঁচ বছরেই বনে গেলেন ৩০৪ কোটি টাকার মালিক, তবুও বলছেন জীবন একঘেয়ে!

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২
  • ১৬ বার পড়া হয়েছে

মানুষ সবসময়ই ধনী হওয়ার স্বপ্ন দেখে। এটি মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। প্রতিটি মানুষেরই আগ্রহ থাকে প্রচুর টাকা কামানোর। যেন জীবনের ঐশ্বর্যের কোনও কমতি না থাকে।

কিন্তু টাকাই জীবনে সব কিছু নয়- এ কথাও শোনা যায় মানুষের মুখে। টাকা মানুষকে সুখ দিতে পারে না- এমন কথাও প্রচলন আছে সমাজে। আর এসবের একটি জ্বলন্ত প্রমাণ ৩৫ বছর বয়সী এক যুবক। এত অল্প বয়সে বিপুল সম্পদের মালিক হয়েও সুখে নেই তিনি।

বরং এই জীবন থেকে এখন মুক্তি পেতে চাইছেন তিনি।
এটি কোনও গল্প বা কাহিনি নয়। বাস্তবের ঘটনা এটি। ৩৫ বছরের ওই যুবক ব্রিটেনের নাগরিক।

রেডিট-এ নিজের নাম প্রকাশ না করে তার এই উপলব্ধির কথা ব্যক্ত করেছেন যুবক।
শত কোটি টাকার মালিক হওয়া সত্ত্বেও জীবনের প্রতি বিতৃষ্ণা চলে এসেছে তার। তাই আগের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন ওই যুবক।

তিনি জানিয়েছেন, কোটিপতি হওয়ার নেপথ্যে রয়েছে বিটকয়েন। ২০১৪ সালে ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েন সম্পর্কে জানতে পারেন তিনি।

তারপর থেকেই ডিজিটাল মুদ্রায় বিনিয়োগ করা শুরু করেন। দেড় বছরের মধ্যে তার সঞ্চয়ের পুরো টাকাই বিনিয়োগ করেন।
২০১৭ সালে ২০ লাখ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৩ কোটি ৪২ লাখ টাকা) লাভ হয় তার। ২০১৯ সালে ডিজিটাল মুদ্রা থেকে ২৬ মিলিয়ন পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩০৪ কোটি ৪৭ লাখ টাকা) আয় করেন। জীবনের সব শখ স্বাচ্ছন্দ্য মিটিয়েও এই বিপুল পরিমাণ টাকা শেষ করতে না পেরে বিরক্ত হয়ে উঠেছেন তিনি।

ওই যুবক জানিয়েছেন, একজন কনটেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে একটি সংস্থায় মাসিক ২৯ লাখ টাকা বেতনে কাজ করতেন তিনি। বেতনের বেশির ভাগ টাকাই সঞ্চয় করতেন। ১০ বছর কাজ করার পর চাকরি ছেড়ে দেন। চাকরিজীবনে বিপুল টাকার মালিক এবং ঐশ্বর্যের স্বপ্ন দেখতেন। কিন্তু যখন কোটি কোটি টাকার মালিক হলেন, তখন বলছেন, এই বিপুল পরিমাণ টাকা তার জীবনে একঘেয়েমি এনে দিয়েছে।

সূত্র: দ্য সান, গ্লোব নিউজ ইনসাইডার, এনিটিভি নিউজ

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত